বৃহস্পতিবার ২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শিখরের সঙ্গে সম্পর্কের কথা স্বীকার করলেন জাহ্নবী!

বিনোদন ডেস্ক:   |   রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | প্রিন্ট  

শিখরের সঙ্গে সম্পর্কের কথা স্বীকার করলেন জাহ্নবী!

বলিউডে নতুন প্রজন্মের নায়িকাদের মধ্যে অন্যতম জাহ্নবী কাপুর। ২০১৮ সালে বলিউডে অভিষেকের পর পাঁচ বছরে ধীরে ধীরে পরিচিত মুখ হয়ে ওঠেন জাহ্নবী। তার অভিনয় জীবনের চেয়ে ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে উৎসাহ বেশি দর্শক ও অনুরাগীদের। প্রথম সিনেমায় অভিনয় করার পরই অভিনেতা ঈশান খট্টরের সঙ্গে নাম জড়িয়েছিল জাহ্নবীর। তবে জাহ্নবীর জীবনে ঈশান এখন অতীত। গত কয়েক মাস ধরে শিখর পাহাড়িয়ার সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করছেন অভিনেত্রী। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েক বার একসঙ্গে দেখাও গেছে জাহ্নবী ও শিখরকে। এ বার আম্বানিদের গণেশ পুজার ভাসানেও দেখা গেল তাদের এক সাথে।

মাস খানেক আগে তিরুপতি মন্দিরেও শিখরের সঙ্গে পূজা দিতে গিয়েছিলেন জাহ্নবী। অভিনেত্রীর হাতে ছিল হীরার আংটিও। তখনই গুঞ্জন ছিল, শিখরের সঙ্গে নাকি আংটিবদল সেরে নিয়েছেন অভিনেত্রী। সেই জল্পনায় এখনও সিলমোহর দেননি নায়িকা। তবে আম্বানিদের বাড়ির গণপতি বিসর্জনে শিখরকে পাশে নিয়েই নাচ করলেন জাহ্নবী। চর্চিত প্রেমিকের সঙ্গে যে ছবিশিকারিদের ক্যামেরার সামনেও বেশ সাবলীল তিনি, তার প্রমাণ মিলল।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে নিজের প্রেম জীবন নিয়েও কথা বলেছিলেন জাহ্নবী। অভিনেত্রী জানান, গভীর ভালোবাসা থাকা সত্ত্বেও মা শ্রীদেবীর সায় না থাকায় প্রেমিকের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙতে হয়েছে তাকে। জাহ্নবীর কথায়, আমার জীবনের প্রথম সিরিয়াস সম্পর্ক যেটা… মা-বাবা তেমন ভাবে সায় না দিলেও আমি আর আমার প্রেমিক লুকিয়ে লুকিয়ে একে অপরের সঙ্গে দেখা করতাম। আলাদাই একটা রোমাঞ্চ ছিল আমাদের ওই সম্পর্কে।

তবে ওই প্রেমিকের সঙ্গে জাহ্নবীর সম্পর্ক টেকেনি। জাহ্নবী বলেন, ওই সম্পর্কটা আর টিকিয়ে রাখাই যায়নি। আমি আমার মা-বাবাকে মিথ্যা বলতে বলতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছিলাম। আর আমার মা-বাবা এতটাই সেকেলে আর কঠোর ছিলেন ওই সময়, ওরা বলেই দিয়েছিলেন, আমি কারও সঙ্গে প্রেম করতে পারব না।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ২:২২ অপরাহ্ণ | রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২৩

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar