শুক্রবার ২১শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৭ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শেখ রাসেলের জন্মদিনে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদ

ঘাতক রাশেদকে ফেরাতে মার্কিন কর্তৃপক্ষকে স্মারকলিপি প্রদানের উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২ | প্রিন্ট  

ঘাতক রাশেদকে ফেরাতে মার্কিন কর্তৃপক্ষকে স্মারকলিপি প্রদানের উদ্যোগ

শহীদ শেখ রাসেলের ৫৯তম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের নেতৃবৃন্দ। ছবি-বাংলাদেশ প্রতিদিন।

শেখ রাসেলের ৫৯তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে রবিবার ১৬ অক্টোবর লসএঞ্জেলেসে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে এবং বঙ্গবন্ধু পরিষদ ক্যালিফোর্নিয়া শাখার সহযোগিতায় এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এই অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর পরিবারের হত্যাকারীদের অন্যতম ফেরারী আসামি খুনী রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য বিশেষ পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করা হয়। বক্তারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তাঁর কনিষ্ঠ পুত্র সহ ১৯৭৫ এর ১৫ আগস্টে পরিবারের ১৯ জন সদস্যের এই হত্যাকান্ডকে ইতিহাসের জঘন্যতম হত্যাকান্ড এবং একটি নারকীয় সন্ত্রাসী ঘটনা হিসেবে উল্লেখ করেন। আরো উল্লেখ করা হয় যে, বঙ্গবন্ধু এবং শেখ রাসেল-সহ ঐ নৃশংসতার বলি সকলের ঘাতক হিসেবে দন্ডিত রাশেদ চৌধুরী বেশ ক’বছর ধরে ক্যালিফোর্নিয়া স্টেটে রাজকীয় জীবন-যাপন করছে।

নিউজার্সি থেকে এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি, বীর মুক্তিযোদ্ধা এবং একুশে পদকপ্রাপ্ত লেখক ড. নুরুন নবী বলেন, যুদ্ধ ক্ষেত্রেও নারী শিশুকে রেহাই দেয়া হয় কিন্তু ১৫ আগস্টে খুনীরা বঙ্গবন্ধু পরিবারের নারী-শিশু সহ সবাইকে হত্যা করে। ‘৭১ এর পরাজিত শক্তি তাদের পরাজয়ের গ্লানি মোচন করতে শিশু শেখ রাসেলকেও হত্যা করে বলে তিঁনি উল্লেখ করেন। বেঁচে থাকলে শেখ রাসেলের এক সম্ভামনাময় জীবন হতো বলে উল্লেখ করে তিঁনি জানান, যুক্তরাষ্ট্র থেকে খুনী রাশেদ চোধুরীকে দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রানা হাসান মাহমুদের নেতৃত্বে সহ-সভাপতি (বিশেষ প্রকল্প) ড. আবু নাসের রাজীব এবং সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত আলীর নেতৃত্বে তিন সদস্য বিশিষ্ট এক কমিটি গঠন করা হয়েছে। গত মার্চে সিনেটের পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক কমিটির চেয়ারম্যান সিনেটর বব মেন্ডেজের সাথে আলাপকালে রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফেরত পাঠানোর বিষয়ে তাঁর সহযোগিতা প্রার্থনা করেন এবং কারণসমূহ উল্লেখ করে যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের পক্ষ থেকে একটি স্মারকলিপি প্রদান করার তথ্যও প্রকাশ করেন ড. নূরুননবী।

অনুষ্ঠানে মূল আলোচক যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সাধারন সম্পাদক রানা হাসান মাহমুদ ক্যালিফোর্নিয়ায় অবস্থিত খুনি রাশেদ চৌধুরীকে দেশে ফেরত পাঠানোর জন্য গৃহীত পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন। এই খুনিকে দেশে পাঠানোর জন্য বঙ্গবন্ধু পরিষদের উদ্যোগে এবং সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত আলীর প্রচেষ্টায় পাঁচ হাজারেরও বেশি স্বাক্ষর সংগৃহীত হয়েছে বলে তিঁনি উল্লেখ করেন। শীঘ্রই অনলাইনে ঐ আবেদনপত্রে আরো স্বাক্ষর গ্রহণ করে যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাটর্নি জেনারেল মেরিক গারল্যান্ড এবং হোমল্যান্ড সিকিউরিটি মন্ত্রী আলেহান্দ্রো মেয়োর্কাসকে পাঠানো হবে। এজন্য মানবতার খাতিরে দলমত নির্বিশেষে সকল প্রবাসীকে আবেদনপত্রে স্বাক্ষর করার জন্য তিঁনি বিশেষ ভাবে অনুরোধ করেন। ১৫ আগস্টের হত্যাকান্ডকে সন্ত্রাসী হামলা অভিহিত করে তিঁনি বলেন, ৯/১১ এর সন্ত্রাসী হামলার পর যুক্তরাষ্ট্র “গ্লোবাল ওয়ার এ্যাগেইনস্ট টেরর” ঘোষণা দিয়ে বিশ্বব্যাপী সন্ত্রাস দমনের জন্য যুদ্ধ করছে অথচ রাশেদ চৌধুরীর মতো এক জঘন্য সন্ত্রাসীকে রাজনৈতিক আশ্রয় দিয়েছে। মার্কিন প্রশাসনের এই দ্বৈত্ব নীতির তিঁনি কঠোর সমালোচনা করেন।

যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের সহ সভাপতি ডঃ আবু নাসের রাজীব বঙ্গবন্ধুর সবচেয়ে আদরের সন্তান শেখ রাসেলের ছেলেবেলা থেকেই মানবিক গুনাবলির দিক গুলো তুলে ধরেন। তিঁনি খুনি রাশেদ চৌধুরীকে ভীরু কাপুরুষ বলে উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধু পরিষদের প্রচেষ্টার কার্যকারিতা বর্ণনা করেন এবং সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।
অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ ক্যালিফোর্নিয়া শাখার সভাপতি নজরুল আলম। বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহেদুল মাহমুদ জামি এবং মোফাজ্জেল হোসেন ঢালী সহ শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিবসের এই অনুষ্ঠানে লসএঞ্জেলেসের রাজনৈতিক, সামাজিক এবং সাংস্কৃতিক অঙ্গনের বিশিষ্ট নেতৃবৃন্দ্র ছিলেন।

স্বাগত বক্তব্য রাখেন বঙ্গবন্ধু পরিষদ ক্যালিফোর্নিয়া শাখার সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শওকত আলম। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন জেবা জেবুন্নেসা। অনুষ্ঠানের সঞ্চালক জেবা জেবুন্নেসা শহীদ শেখ রাসেল এবং তাঁর মেজো বোন ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরী স্কুলের সহপাঠী ছিলেন উল্লেখ করে তাঁর পরিবারের সাথে শহীদ শেখ রাসেলের স্মৃতি সব সময়ই আবেগতাড়িত বলে বর্ণনা করেন।
অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধুর সাথে শহীদ শেখ রাসেলের জাপান সফরের একটি প্রামাণ্য চিত্র প্রদর্শন করা হয় এবং যুক্তরাষ্ট্র বঙ্গবন্ধু পরিষদের স্পন্সরশীপে নির্মিত ‘ফিরে এসো বঙ্গবন্ধু’ ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়। অনুষ্ঠানে পবিত্র কোরান থেকে তেলাওয়াত করেন মোহাম্মদ হোসেন রানা এবং পবিত্র ত্রিপিটক থেকে পাঠ করেন শিমুল বড়ুয়া। এরপর কমিউনিটির নেতৃবিন্দের উপস্থিতিতে শহীদ শেখ রাসেলের ৫৯ তম জন্মদিন উপলক্ষে কেক কেটে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:৩৮ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৮ অক্টোবর ২০২২

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar