মঙ্গলবার ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সালমানকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা হয়েছিল!

বিনোদন ডেস্ক:   |   শনিবার, ১১ জুন ২০২২ | প্রিন্ট  

সালমানকে গুলি করে হত্যার চেষ্টা হয়েছিল!

বলিউড ভাইজান সালমান খানকে সম্প্রতি হত্যার হুমকি দেওয়া হয়। অভিনেতার বাবা সেলিম খান প্রাতর্ভ্রমণে বের হলে তাকে হুমকি দেওয়া চিঠি দেওয়া হয়। ঘটনার গুরুত্ব আরও বেড়ে যায়, যখন জানা যায়, সালমানকে হত্যার হুমকিদাতা আর কেউ নন, কুখ্যাত গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই। জেলে বন্দী বিষ্ণোইয়ের নাম উঠে এসেছে মুসে ওয়ালাকে হত্যার ঘটনাতেও। ঘটনার গুরুত্ব বুঝে মুম্বাই পুলিশ ও পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ দ্রুত শুরু করে তদন্ত।

কোনো সিনেমার গল্প নয় এটি। সত্যিই সালমান খানকে হত্যার চেষ্টা করা হয় সম্প্রতি। যদিও অল্পের জন্য প্রাণে বেঁচে গেছেন সালমান খান। সালমানকে গুলি করে হত্যার জন্য তার বাসার সামনে একজন দক্ষ- প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত শুটারকে (শার্পশুটার) নিযুক্ত করা হয়েছিল। তার কাছে ছিল খুবই আধুনিক ক্ষুদ্র আগ্নেয়াস্ত্র। যেটা একটা হকি স্টিকের ব্যাগে বহন করছিলেন ঘাতক।

ঘাতক সালমানের খুব কাছে গিয়েও শেষ মুহূর্তে সুযোগ হাতছাড়া করেন। ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস নেটওয়ার্ক এ খবর জানিয়েছে। জানা গেছে, ঘাতক সালমান খানের ইঞ্চিখানেকের মধ্যে এসেছিলেন। কিন্তু শেষ মুহূর্তে পিছিয়ে পড়েন ঘাতক শার্পশুটার।

লরেন্স বিষ্ণোই আর তার সহযোগীরা সালমানকে পর্যবেক্ষণ করে যাচাই করে জানতে পারে তিনি সকালে সাইক্লিং করেন। পরিকল্পনা করা হয় সে সময়ই তাকে গুলি করে হত্যা করা হবে। কিন্তু নির্দিষ্ট সেই দিন সকালে ঘর থেকে বের হবার সময় একজন পুলিশ সহযোগী দেওয়া হয় সালমানকে। আর এতে করে ষড়যন্ত্র ভেস্তে যায়।

টাইমস নেটওয়ার্কের খবরে বলা হচ্ছে, সালমান খান শুধু একটা ঝাঁকুনির কারণে বেঁচে যান। মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চের তৎপরতায় সালমান খানকে খুনের হুমকি দেওয়া কেসের তদন্ত যেন খুবই দ্রুত এগিয়ে চলেছে। ইতোমধ্যে মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চ এর একটি দল পৌঁছেছে দিল্লিতে, সেখানে পৌঁছেই লরেন্স বিষ্ণোই এর দলকে জিজ্ঞাসা বাদ করেছে তারা।

আর সেই জিজ্ঞাসাবাদে উঠে এসেছে নতুন কিছু তথ্য। জানা গেছে লরেন্সের গ্যাং এর পক্ষ থেকে সালমানকে সেই হুমকি দেয়া হয়েছে। বিক্রম ব্রারের নির্দেশেই নাকি এই হুমকি দেওয়া হয়। সংবাদ মাধ্যমকে এমনটাই জানিয়েছে পুলিশ।

বিক্রম এখন রয়েছেন কানাডায়। তার কথা মতোই বেনামি হুমকি চিঠি নিয়ে গত ৫ জুন তিন জন মুম্বাইতে এসেছিলেন। তারা সবাই মুম্বাই এসে সৌরভ মহাকালের সাথে দেখা করেন বলে জানায় পুলিশ। এই সৌরভকে ঘণ্টার পর ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে মুম্বাই ক্রাইম ব্রাঞ্চ।

মুম্বাই পুলিশ সূত্রে খবর, অভিযুক্ত সৌরভ মহাকাল জানিয়েছে, বিষ্ণোইয়ের সহযোগী বিক্রম বারাদ চিঠিটি সেলিম খানের কাছে নিয়ে গিয়েছিল। জেলে থাকা গ্যাংস্টার লরেন্স বিষ্ণোই এর নির্দেশে সালমান খান ও তার বাবা সেলিম খানকে এই চিঠি দিয়েছিল। তার গ্যাংয়ের তিনজন লোক রাজস্থানের জালোর থেকে মুম্বাই এসেছিল চিঠিটি দেওয়ার জন্য।

পুলিশ আরও জানিয়েছে, চিঠিটি যারা নিয়ে এসেছিল তাদের চিহ্নিত করা গেছে। শিগগির তাদের গ্রেপ্তার করা হবে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:০৫ অপরাহ্ণ | শনিবার, ১১ জুন ২০২২

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩
১৪১৫১৬১৭১৮১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
২৮২৯৩০  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar