সোমবার ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ওয়েস্টার্ন কানাডায় তীব্রতর হচ্ছে দাবানল, আলবার্টায় বেড়েছে তীব্রতা

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ১৩ জুন ২০২৩ | প্রিন্ট  

ওয়েস্টার্ন কানাডায় তীব্রতর হচ্ছে দাবানল, আলবার্টায় বেড়েছে তীব্রতা

ভয়াবহ দাবানলে বিপর্যস্ত উত্তর আমেরিকার দেশ কানাডা। চলমান এই দাবানলের জেরে দেশটির ওয়েস্টার্ন কানাডা ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে। এছাড়া আলবার্টা প্রদেশে আবারও দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। অন্যদিকে কুইবেক প্রদেশে দাবানল পরিস্থিতির কিছুটা উন্নতি হয়েছে। এতে করে বাড়ি-ঘরে ফিরে আসার সুযোগ পাচ্ছেন বহু মানুষ। মঙ্গলবার (১৩ জুন) এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে বার্তাসংস্থা রয়টার্স।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলমান ভয়াবহ দাবানল ১২ জুন ওয়েস্টার্ন কানাডাকে ধোঁয়ায় আচ্ছন্ন করে ফেলেছে। এছাড়া উত্তর আমেরিকার এই দেশটির প্রধান তেল উৎপাদনকারী প্রদেশ আলবার্টাতে ফের দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে।

কুইবেকের দমকলকর্মীরা চলতি মৌসুমের সবচেয়ে খারাপ এই দাবানল কিছুটা নিভিয়ে ফেলতে সক্ষম হওয়ায় বাড়িতে ফেরার পথ উন্মুক্ত হতে চলেছে হাজার হাজার উদ্বাস্তু মানুষের। কানাডার এই দাবানলে ইতোমধ্যেই দেশটির প্রায় ৪৮ লাখ হেক্টর (৪৮ হাজার বর্গ কিলোমিটার) এলাকা পুড়ে গেছে। যা পশ্চিম ইউরোপের দেশ নেদারল্যান্ডসের চেয়েও বড় এলাকা।

রয়টার্স বলছে, গ্রীষ্মকালে কানাডায় দাবানল হওয়া বেশ নিয়মিত বিষয়। তবে বর্তমানে যে ধরনের দাবানল দেখা যাচ্ছে এবং মৌসুম শুরুর আগেই এটি শুরু হওয়া একেবারেই নজিরবিহীন। সোমবার কানাডিয়ান ইন্টারএজেন্সি ফরেস্ট ফায়ার সেন্টার জানিয়েছে, বর্তমানে কানাডাজুড়ে প্রায় ৪৪৯টি আগুন জ্বলছে। এর মধ্যে ২১৯টি আগুন নিয়ন্ত্রণের বাইরে।

কানাডার ফেডারেল আবহাওয়াবিদ জেরাল্ড চেং ১২ জুন সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘পশ্চিম কানাডার দিকে তাকালে দেখা যাবে- এটি সম্পূর্ণরূপে ধোঁয়ায় ঢেকে গেছে এবং এই পরিস্থিতি মঙ্গলবার পর্যন্ত অব্যাহত থাকবে। ধোঁয়ার ঝুঁকি খুব বেশি কারণ বাতাস সত্যিকার অর্থেই আলবার্টাজুড়ে মঙ্গলবার পর্যন্ত এই ধোঁয়া উড়িয়ে নেবে।’

অন্যদিকে, আলবার্টার দাবানলের কারণে পূর্ব দিকে সাসকাচোয়ান এবং ম্যানিটোবা প্রদেশের আকাশে ব্যাপক ধোঁয়া যাচ্ছে। টিসি এনার্জি জানিয়েছে, গত ১০ জুন এডসনের দাবানলের কাছাকাছি দু’টি কম্প্রেসার স্টেশন এবং একটি গ্যাস স্টোরেজ অবকাঠামো বন্ধ করতে হয়েছিল।

এছাড়া এনভায়রনমেন্ট কানাডার এয়ার কোয়ালিটি হেলথ ইনডেক্সে আলবার্টার প্রাদেশিক রাজধানী এডমন্টন এবং তেল ও বালির কেন্দ্র বলে পরিচিত ফোর্ট ম্যাকমুরেকে ‘উচ্চ ঝুঁকির’ ক্যাটাগরিতে রাখা হয়েছে।

রয়টার্স বলছে, কুইবেক প্রদেশে দাবানলের কিছু আগুন নেভানো সম্ভব হয়েছে। গত সপ্তাহে কানাডার এই প্রদেশটিতে প্রায় ১৫০টি আগুন জ্বলছিল। তবে সোমবার সক্রিয় দাবানলের সংখ্যা প্রায় ১১০টিতে নেমে এসেছে। মূলত এই প্রদেশের দাবানলের ধোঁয়া যুক্তরাষ্ট্রের পূর্ব উপকূলে পৌঁছে গেছে।

আবহাওয়াবিদ জেরাল্ড চেং বলেন, ১২ জুন কুইবেকে বৃষ্টির পূর্বাভাস ছিল। তবে সবচেয়ে সক্রিয় দাবানল রয়েছে এমন জায়গায় যে বৃষ্টিপাত হয়েছে তা পর্যাপ্ত নয়। তিনি আরও বলেন, ‘ চলতি সপ্তাহের শেষের দিকে প্রদেশটিতে বজ্রপাতসহ বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে।’ আর বজ্রপাতের ফলে নতুন করে আগুন জ্বলা বা দাবানল সৃষ্টির ঝুঁকি থাকে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

রয়টার্স বলছে, আলবার্টা, নোভা স্কটিয়া এবং কুইবেকে প্রায় ৫ হাজার অগ্নিনির্বাপক কর্মী মোতায়েন রয়েছেন। কানাডার প্রতিরক্ষামন্ত্রী অনিতা সোমবার এক ব্রিফিংয়ে বলেছেন, এডসনে আরও সেনা সদস্য মোতায়েন করা হবে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১:০৪ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ১৩ জুন ২০২৩

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বু বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১৩
১৫১৬১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
৩০৩১  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar