সোমবার ১৫ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩১শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের প্রেসিডেন্টের ৪ অগ্রাধিকার :শান্তি, সমৃদ্ধি, অগ্রগতি এবং টেকসই

বিশেষ সংবাদদাতা   |   বুধবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | প্রিন্ট  

জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনের প্রেসিডেন্টের ৪ অগ্রাধিকার :শান্তি, সমৃদ্ধি, অগ্রগতি এবং টেকসই

নবাগত পেসিডেন্ট ডেনিস ফ্র্যান্সিসকে শপথ করাচ্ছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট কসেবা করোসি। পাশে আমিনা মোহাম্মদ। ছবি-বাংলাদেশ প্রতিদিন।

জাতিসংঘের ৭৮তম সাধারণ অধিবেশনের উদ্বোধনী বক্তব্যে নবাগত প্রেসিডেন্ট ডেনিস ফ্র্যান্সিস তাঁর চার দফা অগ্রাধিকারের বিবরণী কালে সারাবিশ্বের ঐক্য কামনা করেছেন। বিরাজমান পরিস্থিতির অবসানে মানবতার কল্যাণে প্রকৃত অর্থেই আগ্রহীদেরকে পরস্পরের সহযোগী হয়ে মাঠে থাকার অপরিসীম গুরুত্বের আলোকপাত করেছেন ডেনিস ফ্র্যান্সিস। ৫ সেপ্টেম্বর প্রেসিডেন্ট হিসেবে শপথ গ্রহণের পরই তিনি জাতিসংঘের সদস্য রাষ্ট্রসমূহের প্রতি সম্মিলিত পদক্ষেপকে গুরুত্ব দেয়ার আহবান জানান।

এক্ষেত্রে তাঁর অগ্রাধিকারের চার দফা হচ্ছে শান্তি, সমৃদ্ধি, অগ্রগতি এবং টেকসই। ডেনিস ফ্র্যান্সিস উল্লেখ করেন, জটিল পরিস্থিতির মুখে নিপতিত হয়েছে বিশ্ব। এর অন্যতম হচ্ছে জলবায়ু পরিবর্তন, দ্বন্দ্ব-সংঘাত, দারিদ্র্য। এসব চ্যালেঞ্জ শান্তি প্রক্রিয়াকে অসম্ভব করে তোলেছে। অপরদিকে ভূ-রাজনৈতিক বিভাজন বহুপাক্ষিক ব্যবস্থার প্রতি সন্দেহের জন্ম দিয়েছে। প্রেসিডেন্ট ডেনিস বলেন, জাতিসংঘের প্রধান ও গুরুত্বপূর্ণ নীতি-নির্ধারক সংস্থা হিসেবে সাধারণ পরিষদ একটি বিশেষ দায়িত্ব বহন করে যে, আমাদের প্রচেষ্টাকে অবশ্যই একটি শক্তিশালী বহুপাক্ষিক ব্যবস্থায় নোঙর করতে হবে, যা জাতিসংঘের সনদের অন্তর্ভুক্ত লালিত মূল্যবোধ ও নীতির প্রতি বিশ্ব্স্ত হবে। এই পটভূমিতে তিনি ভেটো প্রয়োগের বিষয়ে স্বচ্ছতা এবং জবাবদিহিতার একটি পদক্ষেপ হিসাবে অ্যাসেম্বলীর নিরাপত্তা পরিষদের ভেটো প্রদানের প্রক্রিয়া উপস্থাপন করেন। ডেনিস ফ্র্যান্সিস বলেন, আমাদের অবশ্যই পরিচ্ছন্ন শক্তির রুপান্তরকে ত্বরান্বিত করতে হবে জলবায়ু অর্থায়নকে আরও সহজলভ্য, আরো অ্যাক্সেসযোগ্য এবং আরো সাশ্রয়ী করে।
এ সময় বিদায়ী প্রেসিডেন্ট কসেবা করোসি জাতিসংঘের ৩ টি স্তম্ভের কথা স্মরণ করেন। সেগুলো হলো শান্তি এবং নিরাপত্তা, উন্নয়ন এবং মানবাধিকার। এমতাবস্থায় বিশ্বে দ্বন্দ্ব-সংঘাতের অবসানে জাতিসংঘ সনদকে সমুন্নত রাখার বিকল্প নেই। ইউক্রেন য্দ্ধু ছাড়াও বিশ্বের অপর স্থানসমূহে ৫১টি সশস্ত্র সংঘাত বিরাজমান। অবশ্যই এহেন পরিস্থিতির শান্তিপূর্ণ অবসান ঘটাতে হবে। আর তা করতে হবে জাতিসংঘ সনদ এবং আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী। একইসাথে পারমানবিক বিস্তার এবং পারমানবিক অস্ত্র প্রতিযোগিতা বন্ধ করার আহবানও জানিয়েছেন বিদায়ী প্রেসিডেন্ট। তিনি সমন্বিত, সামগ্রিক সমাধানের প্রয়োজনীয়তা তুলে ধরেন যা কেবল বর্তমান চ্যালেঞ্জগুলোই মোকাবেলা করে না, বরং ভবিষ্যতের বিরুদ্ধেও সুরক্ষা দেয়। কোরোসি আন্তর্জাতিক সহযোগিতার গুরুত্ব পুনর্ব্যক্ত করে উল্লেখ করেন, আমরা জানি যে, একাকী প্রক্রিয়াগুলো শুধুমাত্র একক ফলাফল প্রদান করবে।
সাধারণ অধিবেশন হলে ৭৮তম সাধারন অধিবেশন শুরুর আগে ৭৭তম অধিবেশনের সমাপনী বক্তব্য দেন মহাসচিবের পক্ষে ডেপুটি সেক্রেটারি জেনারেল আমিনা মোহাম্মদ। আমিনা মোহাম্মদ এ সময় বিদায়ী প্রেসিডেন্টের অসাধারণ ভূমিকার প্রশংসা করে বলেন, সমগ্র মানবতার সার্বিক কল্যাণে কূটনৈতিক তৎপরতা অব্যাহত রাখতে সংলাপ ও বিতর্ককে উৎসাহিত করেছেন তিনি। আমিনা মোহাম্মদ বলেন, আসুন আমরা সবাই এই শীর্ষ অধিবেশনকে বহুপাক্ষিকতার জন্য একটি প্রমাণি ক্ষেত্র হিসাবে ব্যবহার করি। সদস্য রাষ্ট্রসমূহের মধ্যে আস্থা, সংহতি এবং বিশ্বাসের ভীত শক্তিশালী করতে সকলে অঙ্গিকারাবদ্ধ হই এবং নিশ্চিত করি যে, আমরা একটি কর্মকৌশল রচনা করতে চাই যা বিশ্বজুড়ে মানুষ এবং সম্প্রদায়ের উপকার করবে।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:৩৫ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বু বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১৩
১৫১৬১৯২০
২১২২২৩২৪২৫২৬২৭
৩০৩১  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar