সোমবার ২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৬ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

নতুন মহামারির শঙ্কায় বিশ্ব, প্রাণ হারাতে পারেন ৫ কোটি মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক   |   মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | প্রিন্ট  

নতুন মহামারির শঙ্কায় বিশ্ব, প্রাণ হারাতে পারেন ৫ কোটি মানুষ

প্রতীকী ছবি

যুক্তরাজ্যের একজন চিকিৎসা বিজ্ঞানী হুঁশিয়ারি দিয়েছেন, ‘এক্স’ নামের একটি রোগের প্রভাবে বিশ্বব্যাপী দেখা যেতে পারে আরেকটি মহামারি। যেটি পুরো বিশ্বকে নাড়িয়ে দেওয়া করোনা মহামারির চেয়েও ভয়াবহ হতে পারে। কেট বিংগ্যাম নামের এই বিশেষজ্ঞ ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ডেইলি মেইলের সঙ্গে এক সাক্ষাৎকারে গত ২২ সেপ্টেম্বর এমন হুঁশিয়ারি দিয়েছেন।
কেট বিংগ্যাম ২০২০ সালের মে থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত যুক্তরাজ্যের ভ্যাকসিন টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘এক্স’ নামের রোগটির ভয়াবহতা— ১৯১৯-১৯২০ সাল পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী তাণ্ডব চালানো স্প্যানিশ ফ্লুর মতো হবে।

নতুন এ রোগটিকে ‘এক্স’ হিসেবে নামকরণ করেছে জাতিসংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক সহযোগী সংস্থা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা বলেছে, ‘এক্স’ নামের রোগটি একটি ভাইরাস, একটি ব্যাকটেরিয়াম এবং ফাঙ্গাস হতে পারে। আর এই রোগের চিকিৎসা দেওয়ার মতো কোনো ওষুধ থাকবে না।

এই ব্রিটিশ রোগ বিশেষজ্ঞ আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন, এই রোগটির কারণে বিশ্বব্যাপী ৫ কোটি মানুষের মৃত্যু হতে পারে। তিনি বলেছেন, ‘আমাকে বিষয়টি এভাবে রাখতে দিন: ১৯১৮-১৯ সালের ফ্লু মহামারিতে বিশ্বব্যাপী ৫ কোটি মানুষের মৃত্যু হয়েছিল। প্রথম বিশ্বযুদ্ধে যত মানুষ নিহত হয়েছিলেন; এ সংখ্যাটি তার দ্বিগুণ। বর্তমানে বিদ্যমান ভাইরাসগুলোর যে কোনো একটিতে একই সংখ্যক প্রাণহানি হতে পারে।’

তিনি আরও বলেছেন, যদি ‘এক্সের’ হুমকি মোকাবিলা করতে হয় তাহলে বিশ্বব্যাপী রেকর্ড সময়ের মধ্যে ভ্যাকসিন কার্যক্রম চালাতে হবে।

গত মে মাসে নিজেদের ওয়েবসাইটে প্রথমবার ‘এক্স’ রোগের কথাটি উল্লেখ করেছিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

সূত্র: ডেইলি মেইল

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ৫:২৫ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar