রবিবার ২৩শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৯ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জাতিসংঘ মহাসচিবের উদাত্ত আহবান

মানবিকতার স্বার্থে পারমাণবিক অস্ত্র অপসারণের বিকল্প নেই

লাবলু আনসার, যুক্তরাষ্ট্র   |   মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২ | প্রিন্ট  

মানবিকতার স্বার্থে পারমাণবিক অস্ত্র অপসারণের বিকল্প নেই

অ্যান্তোনিয়ো গুতেরেস

জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিয়ো গুতেরেস পারমাণবিক অস্ত্রের অপসারণ সংক্রান্ত চুক্তির পক্ষের দেশগুলোর শীর্ষ কর্মকর্তাগণের দশম পর্যালোচনা সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বলেন, ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনা যখন তুঙ্গে, এবং কয়েকটি রাষ্ট্র শান্তি ও নিরাপত্তার স্বার্থে পারমাণবিক অস্ত্রের জন্য বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার ব্যয় করছে।

এসব দেশকে তাদের এহেন মনেবৃত্তির বিরুদ্ধে প্রায় ৮০ বছরের পুরনো রেওয়াজ বজায় রাখার ক্ষেত্রে আন্তরিক হতে হবে। সোমবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘ সদর দফতরে শুরু এ বৈঠক চলবে ২৬ আগস্ট পর্যন্ত।
মহাসচিব গুতেরেস বিশ্বব্যাপী শান্তি ও নিরাপত্তার বর্তমান কিছু চ্যালেঞ্জ তুলে ধরেন, যেখানে বিশ্ব জলবায়ু সংকট, চরম অসমতা, সংঘাত এবং মানবাধিকার লঙ্ঘনের পাশাপাশি কোভিড-১৯ মহামারী দ্বারা সৃষ্ট ধ্বংসযজ্ঞের কারণে আরও বেশি চাপের মধ্যে রয়েছে।
মহাসচিব বলেন, এই চ্যালেঞ্জের মধ্যেই এই বৈঠক হচ্ছে, এবং এমন সময়ে তা অনুষ্ঠিত হচ্ছে যা স্নায়ুযুদ্ধের পর্যায়ে উপনীত হবার পর কখনোই দেখা যায়নি।

মহাসচিব উল্লেখ করেন, “ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনা নতুন উচ্চতায় পৌঁছেছে। প্রতিযোগীতা হচ্ছে সহযোগিতা এবং সহযোগিতাকে তুচ্ছ করে। সংলাপের জায়গা নিয়েছে অবিশ্বাস এবং নিরস্ত্রীকরণের জায়গা নিয়েছে অনৈক্য। রাষ্ট্রগুলো মিথ্যা নিরাপত্তা চাইছে এবং শত শত বিলিয়ন ডলার ডুমসডে অস্ত্রের জন্য খরচ করছে যার আমাদের গ্রহে কোনো স্থান নেই,” তিনি বলেন।

গুতেরেস বলেন, প্রায় ১৩০০০ পারমাণবিক অস্ত্র সারাবিশ্বে অস্ত্রাগারে রাখা হয়েছে। এই সব এমন এক সময়ে যখন তা ব্যবহারের ঝুঁকি বাড়ছে এবং ক্রমবর্ধমান প্রতিরোধের জন্য রেললাইনগুলি দুর্বল হয়ে পড়ছে। এবং যখন সঙ্কট – পারমাণবিক আন্ডারটোন সহ – মধ্যপ্রাচ্য এবং কোরিয়ান উপদ্বীপ থেকে উত্তেজিত হয়। রাশিয়ার ইউক্রেনে আগ্রাসন এবং বিশ্বজুড়ে অন্যান্য অনেক কারণের জন্য।

তিনি বলেন, আজ মানবতা হচ্ছে শুধু একটি ভুল বোঝাবুঝি, পারমাণবিক ধ্বংস থেকে একটি ভুল হিসাব।
জাতিসংঘ মহাসচিব অপ্রসারণ চুক্তির গুরুত্বের উপর জোর দিয়ে বলেছেন যে, চলমান পর্যালোচনা বৈঠকটি মানবতাকে পারমাণবিক অস্ত্রমুক্ত বিশ্বের দিকে একটি নতুন পথে নিয়ে যাওয়ার সুযোগ দেবে বলে সকলের বিশ্বাস।
তিনি পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের বিরুদ্ধে আদর্শিক ঐক্যকে শক্তিশালীকরণ এবং পুনর্নিশ্চিত করার অভিপ্রায়ে পাঁচটি ক্ষেত্রের রূপরেখা দিয়েছেন, যার জন্য চুক্তির প্রতি সকল পক্ষের অবিচল প্রতিশ্রুতি প্রয়োজন।
আমাদের সংলাপ এবং স্বচ্ছতার সমস্ত উপায়কে শক্তিশালী করতে হবে। আস্থা ও পারস্পরিক শ্রদ্ধার অনুপস্থিতিতে শান্তি ধরে রাখা যায় না বলে উল্লেখ করেন মহাসচিব।
সকল দেশকে পারমাণবিক অস্ত্র নির্মূল করার লক্ষ্যে “নিরলসভাবে কাজ” করতে হবে, যা তাদের সংখ্যা সঙ্কুচিত করার নতুন প্রতিশ্রুতি দিয়ে শুরু হয়।

এর অর্থ নিরস্ত্রীকরণ এবং অপ্রসারণ সম্পর্কিত বহুপাক্ষিক চুক্তি এবং কাঠামোকে শক্তিশালী করা, যার মধ্যে আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি সংস্থা (আইএইএ)’র গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব রয়েছে।
তৃতীয় পয়েন্টে গুতেরেস মধ্যপ্রাচ্য এবং এশিয়ায় দৃশ্যমান উত্তেজনা মোকাবেলার প্রয়োজনীয়তার উপর দৃষ্টি নিবদ্ধ করেছেন।
“স্থায়ী সংঘাতে পারমাণবিক অস্ত্রের হুমকি যুক্ত করে, এই অঞ্চলগুলি বিপর্যয়ের দিকে ধাবিত হচ্ছে। উত্তেজনা কমাতে এবং খুব কম দেখা যায় এমন অঞ্চলে নতুন আস্থার বন্ধন তৈরি করতে আমাদের সংলাপ এবং আলোচনার জন্য আমাদের সমর্থন দ্বিগুণ করতে হবে’’ মহাসচিব উল্লেখ করেন।
টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রা (এসডিজিএস) এগিয়ে নেয়ার জন্য একটি অনুঘটক হিসাবে চিকিৎসার উদ্দেশ্যে পারমাণবিক প্রযুক্তির শান্তিপূর্ণ ব্যবহারের প্রচারেরও আহ্বান জানান। শেষে, তিনি চুক্তির সমস্ত অসামান্য প্রতিশ্রুতি পূরণ করার জন্য সরকারগুলিকে অনুরোধ করেন, এবং এই কঠিন সময়ে এটিকে সবকিছুর ঊর্ধ্বে রাখার আহবান জানান।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১২:০৩ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০২ আগস্ট ২০২২

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar