বুধবার ২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইরানের হাজারো কারাবন্দিকে ক্ষমা করলেন খামেনি

বিশ্ব ডেস্ক   |   সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ | প্রিন্ট  

ইরানের হাজারো কারাবন্দিকে ক্ষমা করলেন খামেনি

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি দেশটির হাজারো কারাবন্দিকে ক্ষমা করেছেন। এমনকী ওইসব কারাবন্দি যারা সাম্প্রতিক সরকার বিরোধী বিক্ষোভের সঙ্গে জড়িত ছিলেন, তারাও ক্ষমা পাবেন।

তবে ওই ক্ষমা নিঃশর্ত নয়। বরং ক্ষমা পেতে হতে কিছু শর্ত মেনে চলতে হবে বলে জানিয়েছে দেশটির রাষ্ট্রীয় সংবাদ মাধ্যম। ১৯৭৯ সালে ইরানে ইসলামিক অভ্যুত্থানের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর আগের দিন এই ক্ষমা ঘোষণা করা হল।

তেহরানে নীতি পুলিশের হেফাজতে মাশা আমিনি নামে ২২ বছরের এক কুর্দি তরুণীর মৃত্যু ঘিরে গত সেপ্টেম্বর মাসে ইরানজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছিল। বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের দাবি, ওই বিক্ষোভ চলাকালে পাঁচ শতাধিক বিক্ষোভকারীকে হত্যা করা হয়েছে। যাদের মধ্যে অন্তত ৭০ জন অপ্রাপ্ত বয়স্ক ছিলেন। প্রায় ২০ হাজার বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করা হয়।

গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে কয়েকজনকে নানা অপরাধে দোষীসাব্যস্ত করে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এরই মধ্যে অন্তত পাঁচ জনের ফাঁসি কার্যকরও হয়েছে। বিক্ষোভকারীদের ফাঁসি কার্যকর করা শুরু হওয়ায় পর বিক্ষোভের গতি অনেকটাই কমে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, বিচার বিভাগের প্রধানের কাছ থেকে একটি চিঠি পাওয়ার পর আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি সর্বশেষ এই ক্ষমার সিদ্ধান্ত নেন। ওই চিঠিতে বলা হয়, যাদের গ্রেফতা করা হয়েছে তারা অনেকেই বয়সে তরুণ এবং বিদেশি প্রভাব ও প্রচারের দ্বারা প্ররোচিত হয়ে বিপথগামী হয়েছিলেন।

তাদের অনেকে এখন অনুতপ্ত হয়েছেন এবং ক্ষমা ভিক্ষা করছেন বলে ওই চিঠিতে দাবি করা হয়। তাবে যাদের বিরুদ্ধে বিদেশি সংস্থার হয়ে গুপ্তচরবৃত্তি, নরহত্যা বা রাষ্ট্রের সম্পদ বিনষ্ট করার মত গুরুতর অভিযোগ রয়েছে তাদের ক্ষমা করা হবে না।

দ্বৈত নাগরিক যারা বর্তমানে ইরানের কারাগারে আছেন তাদের বেলাও এই ক্ষমা কার্যকর হবে না। ইরানের সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১১০ অনুযায়ী, বিচার বিভাগের পরামর্শ ক্রমে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা যে কাউকে ক্ষমা করার অধিকার রাখেন।

বিবিসি জানায়, আয়াতুল্লাহ খামেনির ক্ষমা পেতে হলে কী করতে হবে তার ব্যাখ্যা করেছেন বিচার বিভাগের উপ প্রধান সাদেক রহিমি। তিনি বলেন, যারা ক্ষমা পাওয়ার যোগ্য বলে বিবেচিত হবেন তাদের অবশ্যই লিখিত আকারে অঙ্গীকার করতে হবে যে, তারা যা করেছেন তার জন্য তারা অনুতপ্ত। নতুবা তারা মুক্তি পাবেন না।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ২:০৪ অপরাহ্ণ | সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১
১২১৩১৪১৫১৬১৭১৮
১৯২০২১২২২৩২৪২৫
২৬২৭২৮২৯৩০৩১  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar