সোমবার ২৪শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি পেলেন প্রশাসনের ২২১ কর্মকর্তা

প্রতিদিন ডেস্ক   |   মঙ্গলবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | প্রিন্ট  

যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি পেলেন প্রশাসনের ২২১ কর্মকর্তা

যুগ্মসচিব পদে সরকারের ২২১ জন কর্মকর্তাকে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। সোমবার ৪ সেপ্টেম্বর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সহকারী সচিব শেখ শামসুল আরেফীন স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে।

পদোন্নতি পাওয়া ২২১ জনের মধ্যে ২১৫ জনের পদোন্নতি এদিন থেকেই কার্যকর হয়েছে। বাকি ৬ জন বিশ্বের বিভিন্ন দেশে বাংলাদেশের দূতাবাস ও হাই কমিশনে কর্মরত থাকায় তাদের পদোন্নতি পরবর্তী সময়ে কার্যকর হবে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে।

প্রশাসনের ২২তম ব্যাচকে মূল হিসেবে নিয়ে এ পদোন্নতি দেওয়া হয়েছে। এর আগে গত বছরের নভেম্বর যুগ্মসচিব পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল। অর্থাৎ নয় মাসের মধ্যে যুগ্মসচিব পদে আরেক দফা বড় পদোন্নতি পেলেন প্রশাসনের কর্মকর্তারা।

পদোন্নতি পাওয়া কর্মকর্তাদের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়েছে। নতুন যুগ্মসচিবদের পদায়ন করে আদেশ জারি করা হয়নি। পদোন্নতিপ্রাপ্তদের মধ্যে বিদেশে বিভিন্ন দূতাবাস ও মিশনে থাকা ছয়জন কর্মকর্তাও রয়েছেন। জানা গেছে, ২২ ব্যাচের পৌনে তিনশ কর্মকর্তার মধ্যে প্রায় আড়াইশ জনের মতো কর্মকর্তা যুগ্মসচিব পদোন্নতির যোগ্যতার তালিকায় ছিলেন। তার মধ্যে ১৮২ জন পদোন্নতি পেয়েছেন। অন্যরা আগের পদোন্নতি বঞ্চিত ও ইকনোমিক ক্যাডারের থেকে আসা কর্মকর্তা।

পদোন্নতিপ্রাপ্ত বেশির ভাগ যুগ্মসচিবকে বর্তমান কর্মস্থলে ইনসিটু (উপসচিব বা সিনিয়র সহকারী সচিব মর্যাদার পদে দায়িত্ব পালন) থাকতে হবে। উল্লেখ্য, স্থায়ী পদ না থাকায় এমনিতেই অনেক যুগ্মসচিবকে নিচের পদে কাজ করতে হচ্ছে, এর ওপর নতুন করে পদোন্নতি দেয়া হল। বিধিমালা অনুযায়ী, উপ-সচিব পদে কমপক্ষে ৫ বছর চাকরিসহ সংশ্লিষ্ট ক্যাডারের সদস্য হিসেবে কমপক্ষে ১৫ বছরের চাকরির অভিজ্ঞতা বা উপ-সচিব পদে কমপক্ষে তিন বছর চাকরিসহ ২০ বছরের অভিজ্ঞতা থাকলে কোন কর্মকর্তা যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির জন্য বিবেচিত হন।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের তথ্য অনুযায়ী, নতুন পদোন্নতিপ্রাপ্তদের নিয়ে যুগ্মসচিবের সংখ্যা দাড়িঁয়েছে সাড়ে নয়শ জনে। এর আগে সর্বশেষ গত বছরের ২ নভেম্বর ১৭৫ জন কর্মকর্তাকে যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতি দেওয়া হয়েছিল। সব মিলিয়ে সরকারের পদ থাকা যুগ্মসচিবের তুলনায় তিনগুণ বেশি যুগ্মসচিব প্রশাসনে কাজ করবেন। পদোন্নতির ক্ষেত্র মূল বিবেচ্য ছিল ২২তম ব্যাচ। এর সঙ্গে বিবেচনায় এসেছেন পূর্বের পদোন্নতি বঞ্চিতরা।

বিদেশে থাকা কর্মকর্তাদের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনিক মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তার প্রেষণ পদের বেতনস্কেল উন্নীত করে আদেশ জারি করবে বলে প্রজ্ঞাপনে জানানো হয়েছে। আদেশ জারির পর পদোন্নতিপ্রাপ্ত কর্মকর্তা উন্নীত পদে যোগদান করে যোগদানপত্র নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় পাঠাবেন। পদোন্নতি প্রাপ্ত কর্মকর্তা উন্নীত পদে যোগদানের তারিখ থেকে পদোন্নতিপ্রাপ্ত পদের বেতন-ভাতা পাবেন। তবে বৈদেশিক ভাতা এবং এন্টারটেইনমেন্ট অ্যালাউন্সের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট দূতাবাস বা মিশনের নির্ধারিত হার প্রযোজ্য হবে।

‘সরকারের উপসচিব, যুগ্মসচিব, অতিরিক্ত সচিব ও সচিব পদে পদোন্নতি বিধিমালা, ২০০২’ অনুযায়ী, যুগ্মসচিব পদে পদোন্নতির ক্ষেত্রে ৭০ শতাংশ প্রশাসন ক্যাডারের কর্মকর্তাদের ও ৩০ শতাংশ অন্যান্য ক্যাডারের উপসচিব পদে কর্মরতদের বিবেচনায় নিতে হয়।

Facebook Comments Box
advertisement

Posted ১:২১ অপরাহ্ণ | মঙ্গলবার, ০৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩

nypratidin.com |

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement

এ বিভাগের আরও খবর...

আর্কাইভ ক্যালেন্ডার

রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০  

Editor : Naem Nizam

Executive Editor : Lovlu Ansar